July 25, 2021

Shimanterahban24

Online News Paper

লোকসানের মুখে চামড়া ব্যবসায়ীরা

1 min read
চামড়া

চৌমুহনী বাদল সওদাগর প্রতিবছর চামড়া সংগ্রহ করে থাকেন। চামড়া সংগ্রহ করে তিনি নগরের মুরাদপুর চামড়ার আড়তদারদের কাছে বিক্রি করেন। তাঁর হয়ে চামড়া সংগ্রহ করছিলেন মো. ইউনুছ। ইউনুছ বলেন, গতবার যে চামড়ার দাম ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকা ছিল, এবার তা ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত দাম দিতে চাচ্ছেন আড়তদারেরা। এখন ক্ষতির মুখে পড়তে হবে।

বাদল সওদাগার বিকেল সাড়ে চারটা পর্যন্ত সাড়ে তিন হাজার চামড়া কিনে রেখেছেন। চৌমুহনীর আরেক চামড়ার সংগ্রহাক ব্যবসায়ী হলেন মো. রুবেল। তিনিও অন্তত তিন হাজার চামড়া ওই সময়ের মধ্যে সংগ্রহ করেছেন।

সরেজমিন বিকেলে দেখা গেছে, চৌমুহনীতে রাস্তার ওপর চামড়া নিয়ে বসে আছেন ব্যবসায়ীরা। রয়েছেন মৌসুমি ব্যবসায়ীরাও। আড়তদারদের প্রতিনিধিরা এখানে এসে চামড়া কিনে নিয়ে যাবেন। কিন্তু দরদামে মিলছে না তাঁদের সঙ্গে।
ফেরদৌস নামের এক সাধারণ ব্যবসায়ী বলেন, ‘৩০টির মতো চামড়া এনেছি। এখন দাম দিতে চায় কেনা দামের চেয়ে কম। কীভাবে বিক্রি করব। চামড়ার দাম গতবারের চেয়ে কম।’

আড়তদারেরা চৌমুহনী গিয়ে দরদাম করছিলেন। সালাহউদ্দিন দুলাল নামের এক আড়তদার মৌসুমি ও সাধারণ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চামড়া কিনে তা পিকআপে তুলছিলেন। এক ব্যক্তির কাছ থেকে তিনি গড়ে ২৮০ টাকা করে অন্তত ৩০টি চামড়া কিনে নেন। ওই সাধারণ ব্যবসায়ী দাবি করেন, তিনি অনেকটা লোকসান দিয়ে চামড়া ছেড়ে দিয়েছেন।

সালাহউদ্দিন বলেন, চামড়ার দাম আগের চেয়ে কিছুটা কম। তবে অত কম নয়। বড় চামড়া ঠিকই ৩৫০ টাকার বেশি বিক্রি হচ্ছে।

মানুষের বাসা থেকে চামড়া সংগ্রহ করে আনেন মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। পরে তাঁরা আড়তদারের কাছে বিক্রি করে দেন। চৌমুহনী, চট্টগ্রাম। ২১ জুলাই।

মানুষের বাসা থেকে চামড়া সংগ্রহ করে আনেন মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। পরে তাঁরা আড়তদারের কাছে বিক্রি করে দেন। চৌমুহনী, চট্টগ্রাম। ২১ জুলাই। ছবি: জুয়েল শীল

সাকিব নামের এক মৌসুমি ব্যবসায়ী ভ্যান গাড়িযোগে ১০-১২টি চামড়া নিয়ে এসে দাঁড়িয়েছিলেন চৌমুহনী বাজার এলাকায়। কিন্তু দরদামে হচ্ছিল না আড়তদারদের সঙ্গে। সাকিব বলেন, এই চামড়াগুলো তাঁর মামা জসিম উদ্দিনের। জসিম পোশাককারখানায় কাজ করেন। প্রতিবছর কোরবানিতে চামড়া সংগ্রহ করে বিক্রি করেন। এবারও করেছেন। তবে দাম আগের চেয়ে কম।

সূত্র; প্রথম আলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.