March 20, 2023

Shimanterahban24

Online News Paper

পিতার বিরুদ্ধে  স্ত্রী ও সন্তানদের অধিকার আদায়ের দবীতে মানববন্ধন 

1 min read
নূরুল হুদা, নেত্রকোণা থেকে :: বুধবার (০৮ ফেব্রুয়ারী) বেলা ২টার দিকে খলিশাউড় ইউনিয়নের বহেরাকান্দা গ্রামের মোছা: ফাতেমা খাতুন স্বামী মোঃ হারেজ আলীর সকল কিছু থেকে বঞ্চিত হওয়ায় তাঁর চার সন্তানদের অধিকার আদায়ের দাবিতে বহেরাকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এক মানববন্ধনের আয়োজন করেন খলিশাউড় ইউনিয়নবাসী।
খলিশাউড় ইউনিয়ন ও বহেরাকান্দা, শিমুলকান্দি গ্রামের লোকজন বলেন মোঃ হারেজ আলীর দ্বিতীয় স্ত্রী হল ফাতেমা খাতুন বিয়ের পরে পরপর তিন সন্তানের জন্ম দেন হারেজ আলী। কিছুদিন যেতে না যেতেই স্ত্রী সহ সন্তানদের বাড়ি থেকে বের করে দেন তিনি। স্ত্রী মোছাঃ ফাতেমা খাতুন বাবার বাড়িতে থেকে খেয়ে না খেয়ে কোনরকমে সন্তানদের বড় করেন তিনি। এখন হারেজ আলী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রথম স্ত্রীর সন্তানদেরকে তার যা কিছু আছে উইল করে দিয়ে দিবে, আমরা স্থানীয় ভাবে এ বিষয়টি অনেকবার সমাধানের চেষ্টা করেছি কিন্তু হারেজ আলী স্থানীয়দের সালিশ মানে না তাই আমরা একই গ্রামের বাসিন্দা হয়ে আজকের এই মানববন্ধনের মাধ্যমে এই অন্যায় অবিচারের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি ও প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।
২য় স্ত্রী ফাতেমা খাতুন এর ছেলে মোঃ হারুন অর রশীদ বলেন, “মো: হারেজ আলী আমার পিতা। আমিসহ আমার ০৩ বোন উনার ঔরশে আমরা জন্ম গ্রহণ করি। আমরা হারেজ আলীর ২য় পক্ষের সন্তান। ১ম পক্ষের আরো ০৫ জন সন্তান রয়েছে। দীর্ঘ দিন পূর্বে আমার পিতা মো: হারেজ আলী আমিসহ আমার ০৩ বোন ও মাকে তাঁর বাড়ি থেকে বের করে দিলে আমরা আমার নানার বাড়িতে চলে আসি এবং সেখানে আমরা লালিত পালিত হই। আমার বাবা আমাদের কোন ভরণপোষণ না করে বর্তমানে তাঁর সহায় সম্পত্তি ১ম পক্ষের স্ত্রী সন্তানের নামে লিখে দেওয়ার পাঁয়তারা করছে।
সংবাদ পেয়ে আমার মা আমাদেরকে নিয়ে আমার বাবার বাড়িতে গিয়ে আমার পিতা মো: হারেজ আলীকে তাঁর সম্পত্তি হতে আমাদের অংশ বুঝিয়ে দিতে বলেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে যান এবং আমাদেরকে তাঁর বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরবর্তীতে আমার মা সহ আমরা এলাকার গন্যমান্য লোকদেরকে নিয়ে ইং ২৯-০১-২০২৩ খ্রি: তারিখ সকাল অনুমান ০৯:৩০ টার সময় বাবার বাড়িতে গিয়ে উনাকে বুঝানোর চেষ্টা করি।
কিন্তু তিনি কারো কোন কথা না মেনে তাঁর সমস্ত সম্পত্তি তাঁর ১ম পক্ষের স্ত্রী সন্তানের নামে লিখে দেওয়ার চেষ্টা করে। আমার বাবা তাঁর সম্পত্তি হতে আমাদেরকে বঞ্চিত করার পাঁয়তারা করছেন। আমার নামে থানায় মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। এ বিষয়ে আমার আইনগত সহায়তা প্রয়োজন। তাই আমি গ্রাম ও ইউনিয়নবাসীর দ্বারস্থ হই। তাই গ্রাম ও ইউনিয়নবাসী আজকের এই মানববন্ধন আয়োজন করেছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি।”
বহেরাকান্দা গ্রামের অভিযুক্ত হারেজ আলীর ভাতিজা আঃ আজিজ বলেন, আমার চাচা হারেজ আলী দুইটি বিয়ে করেন এবং ফাতেমা খাতুন ২য় স্ত্রী। তাঁর এক ছেলে আর তিন মেয়ে। ছেলেমেয়ে ছোট ছোট থাকা অবস্থায় আমার চাচীকে বাড়ী থেকে বের করে দেন, ছেলেমেয়েরা অনেক কষ্টে বড় হয়েছে।
হারেজ আলী তাঁদের সাথে অন্যায়ভাবে জুলুম নির্যাতন করেছেন। বিষয়টি নিয়ে গ্রামের মাতব্বরদের নিয়ে সুরাহা করতে অনেক চেষ্টা করেছি কিন্তু তিনি গ্রামের বিচার মানেন না। তিনি উল্টা তাঁদের উপর মিথ্যা হয়রানিমূলক মামলা করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.