December 6, 2021

Shimanterahban24

Online News Paper

নায়কের ছোড়া গুলিতে ক্যামেরাম্যানের মৃত্যু, পরিচালক আহত

1 min read

শুটিং সেটেই ঘটে গেল সত্যিকারের ট্রাজেডি। সিনেমার শুটিং চলছিল। নায়কের হাতের বন্দুক তাক করা ছিল ভিলেনের দিকে।

কিন্তু হাঠৎ সেই গুলি লেগে যায় ক্যামেরাপারসনের শরীরে। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। আরেকটি গুলি গিয়ে লাগে পরিচালকের গায়ে। তিনি গুরুতর আহত হন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকোতে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে শুক্রবার বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিনেমার সেটে বর্ষীয়ান মার্কিন অভিনেতা অ্যালেক বল্ডউইন প্রপ বন্দুকের সাহায্যে গুলি চালান।

এতে ক্যামেরাপারসন গালিনা হাচিন্সের (৪২) মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হন পরিচালক জোয়েল সুজা (৪৮)।

পুলিশ জানায়, তারা এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই ঘটনায় কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাস্ট নামে ওই সিনেমায়  ‘মিশন ইম্পসিবল’ খ্যাত বল্ডউইন ১৯ শতাব্দীর পশ্চিমাঞ্চলের প্রধানের ভূমিকায় অভিনয় করছেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় শেরিফের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানান, অ্যালেক বল্ডউইন একটি প্রপ বন্ধুকের গুলি ফাঁকা জায়গায়  চালিয়েছিলেন।

কিন্তু সেই গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে ক্যামেরাপারসন গালিনা ও পরিচালক জোয়েলের গায়ে লাগে। গালিনাকে হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

জোয়েলকে অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে হাচিন্স হাসপাতালে পৌঁছলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরিচালক জোয়েলের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এদিকে, দুর্ঘটনার পর বল্ডউইন স্বেচ্ছায় গোয়েন্দাকে কাছে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন বলে শেরিফের মুখপাত্র জানিয়েছেন।

বল্ডউইন এই সিনেমার একজন সহ-প্রযোজক। তিনি এই সিনেমার নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন।

এই গুলির ঘটনাকে ‘দুর্ঘটনা’ হিসেবে অভিহিত করেছে রাস্ট টিম।

সাধারণত সিনেমার শুটিংয়ে সত্যিকারের আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করা হয় না। শুটিংয়ের সময় গুলির ঝলকানি বোঝানোর জন্য খালি কার্তুজ ধরা থাকে বন্দুকে। কিন্তু তারপরও দুর্ঘটনা ঘটে।

এর আগে ১৯৯৩ সালে মার্শাল আর্ট কিংবদন্তি ব্রুস লির ছেলে অভিনেতা ব্র্যান্ডন লি, ‘দ্য ক্রো’ সিনেমার সেটে মারা যান।

ছবির শুটিংয়ের সময় একটি বন্ধুকের গুলি লাগে তার। ওই গুলি ফাঁকা জায়গায় চালানোর কথা ছিল।

Abu Talha Tufayel

ফেইসবুকে- সীমান্তের আহ্বান

টুইটারে- সীমান্তের আহ্বান

পড়ুন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.