Main Menu

হাইআতুল উলইয়ার প্রতি ঈদের পর কাওমী মাদরাসাসমূহ খুলে দিতে জোর দাবী জানিয়ে ৭২ শীর্ষ আলেমের বিবৃতি

নিজস্ব প্রতিবেদক :: শীর্ষস্থানীয় ৭২ জন হক্কানি ওলামা-মশায়েখ এক যৌথ বিবৃতিতে কওমী অঙ্গনের সর্বোচ্চ ফোরাম আল-হাইআতুল উলইয়া বোর্ড কর্তৃপক্ষের প্রতি আসন্ন ঈদুল ফিতরের পর কওমি মাদরাসাসমূহ খুলে দিতে জোর দাবি জানিয়েছেন।

আজ (১১ মে) সোমবার মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী স্বাক্ষরিত ৭২ জন আলেমের এক বিবৃতি গণমাধ্যমে প্রেরণ করা হয়।

বিবৃতিতে উলামায়ে কেরাম আরো বলেন, করোনা মহামারির কারণে দেশব্যাপী লকডাউন পরিস্থিতি চলায় দেশের প্রায় বিশ হাজার কাওমী মাদরাসার পঁচিশ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী গত শিক্ষাবর্ষের বার্ষিক পরীক্ষা, বেফাক ও আল-হাইআতুল উলইয়ার সেন্টার পরীক্ষা দিতে পারেনি। নিয়ম অনুযায়ী ঈদুল ফিতরের পর থেকে কাওমী মাদরাসাসমূহের নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হতে যাচ্ছে। এ সময়টা কওমি মাদ্রাসাসমূহের জন্য অত্যন্ত গুরুত্ববহ।

উলামায়ে কেরাম আরো বলেন, লকডাউন পরিস্থিতি জারির প্রায় দেড় মাস পর সরকার যখন জনগণের কল্যাণে সবকিছুই শর্তসাপেক্ষে উন্মুক্ত করে দিতে শুরু করেছেন, সেহেতু দেশের শান্তিপ্রিয় সুশৃঙ্খল এবং সবচেয়ে বেশি নিয়ম মেনে চলতে অভ্যস্ত ও আনুগত্যশীল কাওমী শিক্ষার্থীদের আরো একটি শিক্ষাবর্ষে কুরআন ও হাদীসের শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত থাকুক এটা কাম্য হতে পারে না। সুতরাং যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের ছুটির পর কুরআন-হাদীস চর্চার কেন্দ্রস্থল কাওমী মাদরাসাসমূহ খুলে দিতে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করতে কওমী অঙ্গনের সর্বোচ্চ ফোরাম আল-হাইআতুল উলইয়া বোর্ড কর্তৃপক্ষের প্রতি আমরা জোর দাবী জানাচ্ছি।

বিবৃতিদাতা উলামায়ে কেরাম ও পীর-মাশায়েখগণ হলেন, আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী, আল্লামা শায়েখ জিয়া উদ্দিন, আল্লামা মুফতী আব্দুস সালাম চাটগামী, আল্লামা মুফতী মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, আল্লামা নুরুল ইসলাম (আদীব সাহেব), আল্লামা হাফেজ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, আল্লামা আব্দুল হামীদ (পীর সাহেব মধুপুর), আল্লামা মুনিরুজ্জামান সিরাজী, আল্লামা আব্দুর রহমান হাফেজ্জী, আল্লামা আরশাদ রহমানী (বসুন্ধরা), আল্লামা নুরুল হক (বট্টগ্রাম হুজুর), অধ্যক্ষ মিযানুর রহমান চৌধুরী (শায়েখে দেওনা), আল্লামা উবায়দুল্লহ ফারুক, মাওলানা মাহমুদুল আলম (সিরাজগঞ্জ), মাওলানা আব্দুল হক হক্কানী (জামিল মাদরাসা), মুফতী মোবারকুল্লাহ (বি-বাড়ীয়া), মাওলানা নূরুল ইসলাম (খিলগাঁও), মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা জুনায়েদ আল-হাবীব, মাওলানা আবুল কালাম (জামিয়া মুহাম্মাদিয়া), মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া (আরজাবাদ), মুফতী শফিকুল ইসলাম (সাইনবোর্ড), মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী (হাটহাজারী), মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, হাফেয মাওলানা নাজমুল হাসান কাসেমী (বারিধারা), মাওলানা খুরশেদ আলম কাসেমী (খতীব, আল্লা করীম), মাওলানা আব্দুল আউয়াল (নারায়ণগঞ্জ), মুফতি মুনির হোসাইন হোসাইন কাসেমী, মুফতি জাকির হোসাইন কাসেমী, মাওলানা সানাউল্লাহ মাহমূদী (বরিশাল) মুফতি বশির উল্লাহ, মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান, মাওলানা আব্দুল বছির (সুনামগঞ্জ), মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, মাওলানা জামিল আহমদ আনসারী (মৌলভীবাজার), মাওলানা বশির উদ্দিন (নরসিংদী), মাওলানা আব্দুর রহিম, মুফতি রফিকুল ইসলাম, মাওলানা বশির আহমদ (সৈয়দপুর,মুন্সিগঞ্জ), মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী (ময়মনসিংহ), মাওলানা মাহবুব উল্লাহ, মাওলানা নুরুল আবসার মাসুম, মাওলানা আবুল কাশেম (জামালপুর), মুফতি শামসুদ্দিন, মাওলানা মুহাম্মদুল্লাহ খান, মুফতি আবু তাহের (নেত্রকোনা), মুফতি মুহাম্মদুল্লাহ জামী (কিশোরগঞ্জ), মাওলানা আতাউর রহমান কাসেমী, মাওলানা লোকমান মাযহারী (কুমিল্লা), মুফতি শামসুল ইসলাম জিলানী, মাওলানা শাহজালাল, মাওলানা আব্দুল আজিজ (টাঙ্গাইল), মাওলানা ইয়াসিন, মাওলানা হেলাল উদ্দিন (ফরিদপুর), মুফতি কামরুজ্জামান, হাফেজ মাওলানা দেলোয়ার, মাওলানা সাখাওয়াত হোছাইন (খুলনা), মুফতি শহিদুল ইসলাম, মুফতি নজরুল ইসলাম (সিরাজগঞ্জ), মাওলানা আব্দুর রউফ, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস মিরপুর-১৪, মাওলানা নূর মোহাম্মদ (মিরপুর), মাওলানা আলী আকবর (সাভার), মাওলানা আব্দুল খালেক শরিয়তপুরী, মাওলানা সুলাইমান নোমানী, মাওলানা আজিমুদ্দিন, মুফতি মুজিবুর রহমান প্রমুখ।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *