Main Menu

হোয়াইক্যংয়ে রোহিঙ্গা চলাচল দমনে মাঠে নেমেছে বিজিবি চেকপোস্ট স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন

মোনতাছিরুল ইসলাম চৌ ফাহিম, টেকনাফ:-

সরকার ঘোষিত লকডাউন অমান্যকারি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর অবাধ চলাফেরা দমনে হোয়াইক্যংয়ে মাঠে নেমেছে স্থানীয় ছাত্র সমাজের প্রতিনিধিত্বককারী হোয়াইক্যং বিজিবি চেকপোস্ট স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে বেশ কদিন আগেই কক্সবাজার জেলা প্রশাসন পুরো জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেছিল; যেখানে জেলার সকল রোহিঙ্গা ক্যাম্প অন্তর্ভুক্ত ছিলো। কিন্তু অনেক রোহিঙ্গার কক্সবাজার টেকনাফ দড়ক দিয়ে নিয়মিতভাবেই দিনরাত ঘুরে বেড়ানোর ব্যপারে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে স্থানীয় জনসাধারণ।

উখিয়ার কুতুপালংসহ, পালংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আগত রোহিঙ্গারা হোয়াইক্যং বিজিবি চেকপোস্টের উত্তর পাশে গাড়ি থেকে নেমে চেকপোস্ট সংলগ্ন পূর্ব পাশের রাস্তা দিয়ে মিনিট পাঁচেক হেটে চেকপোস্টের দক্ষিণ পাশে এসে গাড়িতে ওঠে।
এতে বিজিবি সদস্যরা আক্রান্ত হওয়ার শংকা কম থাকলেও স্থানীয়দের জন্য ব্যাপারটাকে হুমকি বলেই মনে করছেন স্থানীয় নাগরিক সমাজ। এমন অবস্থায় এলাকাবাসীর নিরাপত্তার স্বার্থে রোহিঙ্গা দমনে সশরীরে মাঠে নেমে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ শুরু করলো চেকপোস্ট এলাকার ছাত্র সংগঠনটি।

এতে চেকপোস্ট এলাকার দুদিকে আদালা দুটি উপদলে বিভক্ত হয়ে কাজ করে সংগঠনটির বেশ ক’জন সদস্য। তাঁদের সাথে অবস্থান নিয়ে স্থানীয় জনসাধারণকে কাউন্সিলিং করার মাধ্যমে অযথা রাস্থাঘাটে অবস্থান না করে ঘরে ফিরে যেতে অনুরোধ জানান সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী জনাব জহিরুল আলম জহির।

এসময় মাঠে নেমে কাজ করা ছাত্রদের উৎসাহ জানান সংগঠনের দুজন উপদেষ্টা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব আজিজুল হক Azizul Hoque ও জনাব আরটিভির টেকনাফ প্রতিনিধি জনাব Nourtazul Mostafa shaheen shah

উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সভাপতি মোহাম্মদ ইসহাক, সহ-সভাপতি বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সালাউদ্দীন কাদের জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক হামিদুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, অর্থ সম্পাদক আমিনুর রশিদ, প্রচার সম্পাদক মোনতাসিরুল ইসলাম চৌং ফাহিম, পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক সালমান ফারসি, আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক মোঃ ফয়সাল, ছাত্রকল্যাণ সম্পাদক নাছির উদ্দীন রুবেল, সদস্য মহিউদ্দীন, মোঃ ইউনুছ, ফেরদৌস এজাহার এবং প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আবু তাহের প্রমুখ।

উক্ত কাজে স্থানীয় প্রশাসন, হাইওয়ে পুলিশ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) উক্ত স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনকে সহযোগিতার পাশাপাশি সাধুবাদ জানান।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *