Main Menu

সরকার ঘোষিত লক ডাউন না মেনে চলছে আবুল খায়ের টোব্যাকো ছিগারেট ফ্যাক্টরি

মোঃ রবিউল হোসাইন সবুজ, কুমিল্লা থেকে।

নোভেল করোনা ভাইরাস চীনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মহামারি আকার ধারন করেছে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েপড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আজ বাংলাদেশও । ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে গত ২৬ মার্চ থেকে সারা দেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। প্রায় সব সড়কে যানবাহন চলাচলও বন্ধ।

আর যখনি সারা বাংলাদেশের সকল মেল,ফ্যাক্টরি ও ইন্ডাস্ট্রি লক ডাউন চলছে তখন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কে বুড়ো আংগুল দেখিয়ে কুমিল্লা লাকসাম ফতেহপুর গ্রামে আবুল খায়ের টোবাকো সিগারেট ফ্যাক্টরি চালু রাখছে। আর কি করে লক ডাউন না মেনে হাজার হাজার শ্রমিক এর জীবন নিয়ে কি করে এমন মরন নিশা মেতে আছেন।লাকসাম বাসীর প্রশ্ন? বাংলাদেশের সরকারের কাছে এ ইন্ডাস্ট্রি কি লক ডাউন এর আওতায় পড়ে না?

স্থানীয় গ্রামের বাসিন্দা বলেন, কুমিল্লা জেলা লাকসাম পৌরসভা ৭ং ওয়ার্ড ফতেপুর গ্রামের তিনটি মূল প্রবেশ পথ ও দক্ষিন বাইপাস পর্যন্ত এলাকার চিলুনিয়া সহ পুরো গ্রাম লকডাউন ঘোষণা করেছেন গ্রামের প্রধান বর্গ ও স্থানীয় যুবকেরা।

গ্রামের বাসিন্দারা আরো বলেন, বাইরে থেকে অনেক লোকজন আমাদের গ্রামে এসে ঘোরাঘুরি করে এ কারখানা খোলা থাকার কারনে। বিষয়টি স্থানীয় কমিশনার ও আওয়ামী লীগের নেত্রীবৃন্দকে জানানো হয়।

স্থানীয় প্রতিনিধিদের একটাই দাবি, অতি দ্রুত এই কারখানা বন্ধ করার দাবী জানাচ্ছে নয়তো হাজার হাজার শ্রমিক মরবে সাথে পুরো লাকসামবাসী।

গ্রামের স্থানীয় “সচেতন যুব সমাজ” প্রতিবেদককে আরো বলেন, আমরা পুরো এলাকা বহিরাগতদের জন্য সতর্কতামুলক স্বরূপ মাইকিং করেছি। যে কোনো যানবাহন বা পায়ে হেটে কেউ যেনো গ্রামে প্রবেশ না করে, এরপরও যদি বাহিরের কেউ প্রবেশের চেষ্টা করে তার বিরুদ্ধে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা নেবো।কিন্ত সবাই যখন আইন মানছে তখন সে সময় আইন ভঙ্গ করতেছে বরাবর এ আবুল খায়ের টোবাগো ছিগারেট ফ্যাক্টরি।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *