Main Menu

করোনা ভাইরাস; কুফর ও শিরকী বাক্য পরিহার করতে হবে

মুফতি আমিনুর রশিদ গোয়াইনঘাটী

করোনা ভাইরাস আল্লাহর পক্ষ থেকে একটা গযব। মহান অাল্লাহ তা’লা মানুষ জাতিকে সতর্ক করে দেয়ার জন্যে মাঝে মাঝে এমন অাযাব আর গযব দিয়ে থাকেন, যাতে মানুষ অার পাপের দিকে অগ্রসর না হয়ে আল্লাহর এবাদতের দিকে প্রত্যাবর্তন করে অার অতীত কর্মকান্ডের জন্যে অনুতপ্ত হয়ে খাঁটি অন্তরে তাঁর কাছে তাওবা করে।অাল্লাহর অাযাব অার গযবের মোকাবেলা করার সাধ্য অাছে কার? সুতরাং যারা স্বঘোষিত বুদ্ধিজীবী, যারা বুদ্ধির বলে চায়ের কাপে সাগরের ঢেউ তুলতে সদা অভ্যস্ত, তাদেরকে বলছি, অাপনারা দয়া করে “করোনা ভাইরাসের মোকাবেলা করতে হবে” করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে” এমন ভাষা ব্যবহার করে অাল্লাহর গযব টেনে নিজেরাও ধ্বংস হবেননা, সাধারণ মানুষকেও ধ্বংসের গহ্বরে নিমজ্জিত করবেননা।

খাল কেটে কুমির অানলে তা কারো জন্যে মঙ্গল বয়ে অানবেনা। মনে রাখতে হবে অাল্লাহর গযবের সাথে যুদ্ধ ঘোষণা করা আল্লাহর সাথে যুদ্ধ ঘোষণা করারই নামান্তর। আমাদেরকে অবশ্যই বুজতে হবে,যারা আল্লাহর সাথে দাম্ভিকতা দেখিয়েছিল, তাদের কি করুন পরিণতি ভোগ হয়েছিল? অতীত থেকে অামাদের শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। পাশ্চাত্যের শ্বেত ভল্লুকেরা যারা দাম্ভিকতা দেখিয়ে বেড়াতো, ইসলাম ও মুসলমানের ওপর স্টিমরোলার চালাতো কোথায় গেল আজ তাদের সেই বড়াই? অাল্লাহর সামান্য একটা ভাইরাসের কাছে আজ সবাই অসহায় বড়ই অসহায়। যারা বলতো করোনার চেয়ে অামরা শক্তিশালী অাজ তাদের অবস্থাটা কি? সুতরাং দাম্ভিকতা নয়, বিনয় সহকারে অাল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করি,বেশি বেশি করে অাল্লাহর নিকট কায়মনোবাক্যে দোয়া করি। দোয়াই হচ্ছে মুমিনের সবচেয়ে বড় হাতিয়ার। বিনয়ীদেরকেই অাল্লাহ ভালবাসেন। সাথে সাথে সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি। নিজে সতর্ক থাকি, অন্যকেও সতর্কতা অবলম্ভন করতে প্রবুদ্ধ করি। আসুন আমরা কুফরী, শিরকী শব্দ /বাক্য পরিহার করি। আল্লাহ অামাদরকে সুমতি দান করুন। হে অাল্লাহ! অামাদেরকে আপনার অযাব, গযব থেকে বিশেষ করে করোনা ভাইরাস থেকে হেফাজত করুন। অামীন।।

(ফেসবুক টাইমলাইন থেকে)

লেখক: সীমান্তের আহ্বানের প্রধান উপদেষ্টা 






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *