January 30, 2023

Shimanterahban24

Online News Paper


Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/shimante/public_html/wp-content/themes/newsphere/lib/breadcrumb-trail/inc/breadcrumbs.php on line 254

সাতজন নারীর দ্বীনের পথে ফিরে আসা ও জিতে যাওয়ার গল্প নিয়ে “বিজয়িনী” আসছে বইমেলায়

1 min read

রওশন আরা তাবাসসুম :: প্রিয় বোন আমার! তোমার হাতে যখন চিঠিখানা পৌঁছবে তখন হয়তো এই নিষ্ঠুর ধরাতে আমি থাকব না।

বোন, শুধু তুমি আর আমার আল্লাহ জানেন কী হয়েছিলো আমার সাথে। নিলয় নামের যে নরপশু আমার সর্বনাশ করেছিলো সেই পশু ছিল মরণব্যধি এইডস আক্রান্ত!

আমি যখন চেকআপ করে জানতে পারি, জানো তখন আমি একটুও ভয় পাইনি। কারণ এ আমার রবের ফায়সালা! আমি আমার রবের ফায়সালাতেই সন্তুষ্ট। আমি এটা ভেবেছি যে- এই রোগের উসিলায় যেন রাব্বে কারীম আমার পেছনের সমস্ত গুনাহ ক্ষমা করে দেন।

আমি জানতাম আমার সময় খুবই কম। তাই সকলের এতো জোড়াজুড়ির পরও বিয়ে করিনি। তোমাকে আগে জানাইনি তুমি শুনলে কষ্ট পাবে বলে। কাঁদবে বলে। তোমার ঐ মায়াবী চোখের অশ্রু আমার সহ্য হতো না, তাই বলিনি। ভালোবাসি তোমায় আল্লাহর জন্য। অপেক্ষায় থাকব জান্নাতে মিলিত হওয়ার।

এতদিন তো আমি পাগলপারা ছিলাম, আল্লাহ কবে তার এই গুনাহগার বান্দীর গুনাহ মোচন করে কাছে ডেকে নেবেন। জানো! এখন আমার মরতে কোনো ভয় নেই। কারণ এখন আমার সাথে আমার আল্লাহ আছেন! আমার জন্য মন থেকে দু’আ করবে আল্লাহ যেন আমায় জান্নাতুল ফিরদাউস দান করেন।

আর মা-বাবাকে বলে দিও, তাদের সুসন্তান হতে পারিনি বলে আমাকে যেন তারা ক্ষমা করেন।

প্রিয় বোন!

সেদিন যদি আমার রব তোমার সাথে আমার সাক্ষাৎ না করাতেন তাহলে আমার উভয় জাহান ধ্বংস হয়ে যেতো। তোমার উছিলায় আল্লাহ পাক আমাকে দ্বীনের বুঝ দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ। আমি তো আমার জীবনের সবচেয়ে সুখময় সময় কাটিয়েছি এই নতুন দিনগুলোতে।

আত্মার প্রশান্তি অনুভব করেছি যখন আমি আমার রবের সামনে দাঁড়াতাম। চোখের অশ্রুতে যে এতো শান্তি রয়েছে তা আমি সেদিনই উপলব্ধি করেছি, যেদিন মন খুলে রব্বে কারীমের দরবারে নিজের অতীত তুলে ধরেছিলাম।

সত্যি বোন! তুমি সেদিন আমাকে যথার্থই বলেছিলে যে, ইসলাম মেয়েদের ঠকায়নি। বঞ্চিতও করেনি। আজ আমি গর্ববোধ করতে পারি একজন পর্দানশীন নারী হতে পেরে। আজ আমি আবৃত ‘মুক্তা’। আমি জানি না দ্বীন কতটুকু পালন করতে পেরেছি, তবে সবসময় সজাগ দৃষ্টি রেখেছি যেন আমার থেকে কোনো আমল ছুটে না যায়।

আর শোনো! তুমি আমার একটি অপূর্ণ কাজকে পূর্ণতায় পৌঁছে দিলে আমি তোমার প্রতি চিরকৃতজ্ঞ থাকব।

তা হলো, আমার বন্ধুমহলে জানিয়ে দিবে, দুনিয়া হাসি-তামাশা করে কাটিয়ে দেওয়ার জায়গা না। এটা হচ্ছে পরীক্ষার হল। এখানে শুধু ঠিকমত পরীক্ষা দিতে হয়। কে কতটা সফল তা শুধু মৃত্যুর পরই জানতে পারবে…

আল্লাহর জমিনে আল্লাহর নাফরমানী করতে ওদের নিষেধ করে দিও। না হয় ধ্বংস অনিবার্য। মৃত্যু সবারই আসবে। তখন দুনিয়ার কোনো বস্তু, কোনো বন্ধু-পরিজন আর অঢেল সম্পদ বিন্দুমাত্র উপকারে আসবে না। শুধু আমাদের ভালো কাজগুলোই আমাদের উপকার করবে। ওরা যেন আমার জীবন থেকে শিক্ষা নেয়।

সবশেষে ওদের উদ্দেশ্যে বলব, দুনিয়ার জন্য ততটুকুই অর্জন করো, যতটুকু সময় তুমি দুনিয়াতে থাকবে। আর আখেরাতের জন্যে ততটুকুই অর্জন করো, যতটা সময় তুমি আখেরাতে থাকবে।

ইতি,
তোমার ছোট বোন ‘নীলা’।

বই- বিজয়িনী
লেখক- সেভেন সিস্টার্স টিম
প্রযত্নে- সাজেদা আল হোসাইনী
সম্পাদক- জাফর বিপি
প্রকাশক- নিয়ন পাবলিকেশন
প্রকাশকাল- বইমেলা- ২০২০

ইসলাম আমাকে ঠকায়নি। ইসলামের বিধান মেনে ‘নারী’ হিসেবে আমি জিতে গেছি।

তোমরা সমানাধিকার চাও, আর ইসলাম আমাকে অগ্রাধিকার দিয়েছে। ইসলাম আমার আপাদমস্তকের প্রোটেক্ট দিয়েছে। আমাদের নিরাপত্তার জন্য আলাদা করে কোনো আইন করতে হয় না। আমাদের অধিকার আদায় করতে কোনো আন্দোলনেও নামতে হয় না।

ইসলাম আমাদের পাওনা আমাদের ঠিক ঠিক বুঝিয়ে দিয়েছে। যা তোমরা এতকিছুর পরও পাইনি, তা আমরা না চাইতেই পেয়েছি। আমরা জিতে গেছি। ইসলাম মেনে সত্যি আমরা জিতে গেছি।

হে বোন! বেলা ফুরাবার আগেই ফিরে এসো। নিজেকেও বিজয়িনী হিসেবে পেতে কাল নয়, আজও নয়, এখনই তুমি তোমার রবের দিকে ফিরে এসো।

সাতজন দীনী বোনের এই ফিরে আসা এবং জিতে যাওয়ার জীবন্ত সব গল্প নিয়েই রচিত ‘বিজয়িনী’। আসছে এবারের বইমেলায়।

‘ফাতিমা আফরিন’ লিখিত বোনদের দীনে ফেরার প্রতি দাওয়াহ ও পারিবারিক শান্তি ফিরিয়ে আনার সোপান হিসেবে মোটিভেশনাল বই ‘চিরকুট’ এবং সেভেন সিস্টার্স লিখিত ‘বিজয়িনী’ বইদুটির প্রি-অর্ডার খুব শীঘ্রই শুরু হবে।

চোখ রাখুন আমাদের এই পেইজে এবং NEON Publication-এর এই অফিসিয়াল পেইজে।

বাংলাভাষী বোনদের জন্য দু’টি মাস্টারপিস বই হতে যাচ্ছে- ‘চিরকুট’ এবং ‘বিজয়িনী’।

এ যেন বোধোদয়ের এক অমূল্য সোপান। আর ফিরে আসার এক অনবদ্য উপাখ্যান…।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.