February 8, 2023

Shimanterahban24

Online News Paper


Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/shimante/public_html/wp-content/themes/newsphere/lib/breadcrumb-trail/inc/breadcrumbs.php on line 254

নরসিংদীতে ৪০ দিন নামাজ পড়ায় ২৭জন কিশোরকে সাইকেল দিল খতিব সাহেব

1 min read

তামীম আল-মাহমুদ (শেখেরচর, নরসিংদী) : নরসিংদী জেলার শেখেরচর বাবুরহাট বাসস্ট্যান্ড জামে মসজিদ এর খতিব সাহেব মুফতি ইমদাদুল্লাহ কাসেমী কিছুদিন পূর্বে মসজিদে ঘোষণা দিয়েছিলেন যে, পনের বছরের কম বয়সের কিশোররা যদি একটানা ৪০ দিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ জামাতের সহিত পরতে পারে তাহলে যারা যারা পড়বে তাদেরকে একটি করে সাইকেল পুরষ্কার দেওয়া হবে।

সে ঘোষণার পরে এলাকা ছেলেরা নামাজ আদায় শুরু করে। এবং সর্বশেষ আজ (১৭ জানুয়ারি শুক্রবার) ২৭ জনের হাতে সেই পুরষ্কার তুলে দেওয়া হল।

ঘটনাস্থলের প্রতিনিধি হুদহুদ রিপোর্টকে জানায়, সাইকেল পেয়ে বাচ্চাগুলো অত্যন্ত আনন্দিত হয়।

কিশোরগুলোকে প্রশ্ন করা হলো: তোমরা কি সাইকেলের জন্যই শুধু নামাজ আদায় করেছ?
তারা উত্তর দেয়, না! বরং আমরা আল্লাহকে রাজী-খুশি করার জন্য নামাজ আদায় করেছি।

তাদের এই উত্তরে উপস্থিত জনগণ সকলে চমকে উঠে, এবং মাশাআল্লাহ বলে বাহবা দিতে থাকে।

খতিব সাহেব মুফতি ইমদাদুল্লাহ কাসেমী কে জিজ্ঞাসা করা হলো আপনি কিভাবে এত বড় উদ্যেগ নিলেন? বা কিভাবে তাদের নামাজ ঠিকঠাক পড়েছে কিনা তার তদারকি করতেন। উত্তরে তিনি বলেন, আমি ঘোষনা দেওয়ার পর প্রায় শতাধিক ছেলে অংশগ্রহণ করে। ফলে তাদের প্রতি ওয়াক্ত নামাজে হাজিরা নেয়া হতো। যদি কেউ কোন ওয়াক্ত উপস্থিত না থাকতো। তখন তার গণণা বন্ধ করে দেয়া হতো। তবে সে চাইলে তার নাম আবার পুনরায় লিখিয়ে তার নামাজ দিন গণণা শুরু করতে পারবে।
এই কদিনে তাদের শুধু নামাজই পড়ানো হয়নি। বরং সঠিক ভাবে নামাজ শিক্ষা ও জরুরী মাসলা-মাসায়েল শিখানো হয়। এবং তরবিয়ে তালিম, নামাজোর প্রতি মানুষকে আহবান ও দ্বীন ও ঈমানের সবক দেয়া হয়েছিল।

এই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ ২৭ জন কিশোর ৪০ দিন নামাজ সঠিক গণণায় পড়তে পারে। এবং আজ জুমার পর অনুষ্ঠানিকভাবে তাদের সবাইকে সাইকেল দেয়া হয়।

স্থানীয় একজন এই ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, হুজুরের এ কার্যক্রম আমাদের বাচ্চাদের নামাজের প্রতি আগ্রহী করে তুলেছে। আমরা বিষয়টি প্রায় কিছুদিন ধরে লক্ষ্য করছি যে বাচ্চারা নামাজে নিয়মিত আসছে। বাচ্চাদের জন্য মসজিদ সব সময় এক রকম মুখরিত হয়ে থাকতো। এ ধরনের পদক্ষেপ সারাদেশের সকল ইমামদের নেয়া উচিত। আলহামদুলিল্লাহ! মুফতি ইমদাদুল্লাহ কাসেমীকে নেক হায়াত দান করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.